Saturday, June 6, 2020

দ্য ফাইভ সেকেন্ড রুল pdf Download

the five second rule bangla translated pdf free Download


বইয়ের নাম: দ্য ফাইভ সেকেন্ড রুল
(সাহসিকতার সাথে বদলে ফেলুন আপনার জীবন, কর্ম ও আত্মবিশ্বাস)
লেখক: মেল রবিন্স
অনুবাদক: আনিস কবির
ক্যাটাগরি: অনুবাদ বই: আত্ম-উন্নয়ন ও মেডিটেশন, মোটিভেশনাল বই
১ম প্রকাশ: 2019 সাল
মোট পৃষ্ঠা: 168 page

দ্য ফাইভ সেকেন্ড রুল অনুবাদ বই রিভিউ:

বইট বইটির কাভারে লেখা আছে, "সাহসিকতার সাথে বদলে ফেলুন আপনার জীবন, কর্ম ও আত্মবিশ্বাস।"

ছােট্ট একটি উদাহরণ দিয়ে দ্য ফাইভ সেকেন্ড রুল বইয়ের রিভিউ শুরু করছি। ধরুন আগামীকাল সকালে আপনাকে একটি নির্দিষ্ট সময়ে অফিসে যেতে হবে। এক্ষেত্রে দুটি সুস্পষ্ট সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হলাে।
১. রাতে নির্দিষ্ট সময়ে ঘুমিয়ে পড়তে হবে এবং 
২.পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুমিয়ে খুব ভােরে নির্দিষ্ট সময়ে ঘুম থেকে উঠে পড়তে হবে।

কিন্তু ঘুমিয়ে পড়ার আগে অনেকগুলাে বিষয় এসে আপনার মাথায় চেপে বসলাে। আপনি চাইলেন, কিছুক্ষণের জন্য ফেসবুকে সময় কাটাতে এবং তারপর ইউটিউব এ দু’একটি ভিডিও দেখতে এবং তারও পরে নতুন কোনাে ইমেইলের সন্ধানে ব্যক্তিগত ইমেইল একাউন্টটি একটু চেক করে দেখতে। নিজেকে এই বলে বােঝালেন যে, কাজগুলাে করতে কী এমন সময় ব্যয় হবে। কিন্তু বাস্তবে দেখা গেল যে, আপনি সামাজিক যােগাযােগ মাধ্যমে প্রবেশ করার পর তা থেকে আর বেরই হতে পারছেন না। সময় চলে গেছে অনেক। এরপর দুই একটি ইউটিউব ভিডিও দেখার কথা চিন্তা করে একের পর এক ভিডিও দেখেই চলেছেন। এর যেন শেষ নেই। পারলে একটা মুভিও দেখেন ৩ ঘন্টার। 
অবশেষে ব্যক্তিগত ই-মেইল একাউন্টটি যখন খুলে বসেছেন ততক্ষনে রাত প্রায় শেষ হতে চলেছে। আরেকটু পরেই হয়ত উঠবে প্রভাতের সূর্য!

এখন আপনিই চিন্তা করে দেখুন আগামীকালকের ঘটনাপ্রবাহ কোনপথে ধাবিত হতে চলেছে। সঠিক সময়ে ঘুমাতে না যাওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে সকালবেলা ঠিক সময়ে ঘুম থেকে উঠতে না পারা এবং তারই পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হিসেবে একটি ব্যর্থ দিনের সূত্রপাত আর ধারাবাহিক ভােগান্তি! তাই নয় কি?  এমনটাই কিন্তু হয় অনেকের ক্ষেত্রেই।

এখন একটি প্রশ্ন হল, এটি কি ধরনের সমস্যা এবং এর থেকে পারিত্রাণ পাওয়ার উপায় কি?
সহজ ভাষায়, সহজ কথায়, এই সমস্যাটির নাম আলসেমি। যার চিকিৎসা কোনাে ডাক্তার করতে পারেন না।

দ্য ফাইভ সেকেন্ড রুল এর লেখিকা মেল রবিন্স ঠিক এই সমস্যাটিকে চিহ্নিত করে এর থেকে মুক্তির একটি উপায় বের করেছেন “দ্য ফাইভ সেকেন্ড রুল" বইটিতে। যার মূল তত্ত্বটি হল, আপনি যখনই একটি সিদ্ধান্ত সঠিক হিসেবে গ্রহণ করবেন, অতঃপর বাস্তবায়ন করবার ক্ষেত্রে কোনােরকম ঢিলেমি বা আলসেমি করা চলবে না। আপনি ক্ষণ গণনা করুন ঠিক এভাবে ৫...৪...৩...২...১ এবং শুরু করে দিন।

পশ্চিমা বিশ্বে যা কখনাে ১০ থেকে, কখনাে বা ৩ থেকে গণনা করা হয়। এটি হলাে রকেটে করে মহাশূন্যযান উৎক্ষেপণ করার মতাে একটি বিষয়। একবার উৎক্ষেপণ করবার পর শুধুই সামনে ছুটে চলা। পেছনে ফেরার আর কোনাে অবকাশ নেই।

পাঠক! আসুন কাউন্ট ডাউন শুরু করি ৫...৪...৩...২...১ এবং আবিষ্কার করি আমাদের অন্তর্গত মহাশক্তির স্ফুরণ।

ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতাঃ ২০১৮ সালে মাস্টার্স শেষ করার পর পরই আমি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজয় ৭১ হল ছেড়ে কল্যানপুরে একটি মেসে উঠি। কিন্তু পড়াশোনা করার জন্য ঠিক করি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরিকে। আপনারা অনেকেই জেনে থাকবেন, এই লাইব্রেরিতে পড়তে হলে সকাল ৬ঃ৩০-৭ টার মধ্যেই উপস্থিত হতে হয়। কিন্তু এই কল্যানপুর থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়!  আশা করি দূরত্ব বুঝতে পারছেন। কিন্তু আমি ব্যবহার করেছি, দ্য ফাইভ সেকেন্ড রুল। আমি প্রত্যক কাজে আগে মাইন্ডসেট করতাম। যেমন এখন ভোর ৫ টা। উঠব কি উঠব না। এরপরই কাউন্ট ডাউন। ফাইভ, ফোর, থ্রি, টু, ওয়ান গো!!! এরপরই উঠে যেতাম। এরপর ঠিক ১০ মিনিটে রেডি হব। আবারও কাউন্ট ডাউন। বাস স্ট্যান্ডে হেটে যাব ১৫ মিনিটে। আবারও কাউন্ট ডাউন! এরপর যদি পড়তে আলিসেমি লাগত, মনে মনে বলতাম, পড়ব কি পড়ব না? আবারও কাউন্ট ডাউন। এভাবে চলেছি প্রায় দেড় বছর। আমার পড়াশোনা বা কাজের কোন সমস্যা হয় নি। হ্যা, একেবারে যে মিস যেত না, তা নয়। মিস গেছে। তবে খুবই খুবই কম।
তাহলে??? এবার আপনারা বইটা পড়ুন। আর শুরু করে দিন কাউন্ট ডাউন!!!

বইটি আমার খুব ভালো লেগেছে। অনুবাদ অসাধারণ। দেরি না করে পড়ে ফেলুন বইটি আর শুরু করুন উদ্দম নিয়ে কাজ করার কাউন্ট ডাউন!!

মেল রবিন্সঃ আমেরিকান এক টিভি চ্যানেলের উপস্থাপিকা। জন্ম ৬ অক্টোবর ১৯৬৮। তার লেখা বই দ্য ফাইভ সেকেন্ড রুল আমার জীবনে অন্যরকম এক প্রভাব ফেলেছে।


দ্য ফাইভ সেকেন্ড রুল অনুবাদ বই পিডিএফ ডাউনলোড লিংক: Click here



দ্য ফাইভ সেকেন্ড রুল Pdf


EmoticonEmoticon